মেনু নির্বাচন করুন

কলমা ইউনিয়নের নাম করনে ইতিহাস

1757 সালে পলাশীর প্রান্তরে নবাব সিরাজউদৌলার পতনের পর বাংলার স্বাধীনতা সূয অস্তমিত হয়। পরাস্ত ও নিহত নবাবের কিছু বিশ্বস্ত হিন্দু মুসলমান সভাসদ মুর্শিদাবাদ ছেড়ে বাংলার পূব প্রান্তে আশ্রয় নেয়। তাদেরই একজন দেওয়ান নিধিরাম। মুর্শিদাবাদের ভাগিরথী প্রবাহে বজরা ভাসিয়ে ভাটিস্রোতের অনুকূলে পূব বাংলার এই অঞ্চলে চলে আসেন। প্রমত্ত পদ্মাকে এড়িয়ে দূরে কোথাও বসতি স্থাপনের উদ্দ্যেশে সঠিক স্থান খুঁজতে খুঁজতে দেওয়ান নিধিরাম রাজনগর,রাজবাড়ী, মীরবহর,তেলীরবাগ,আকিয়াধল পেরিয়ে আরও উত্তরে এসে দেখলেন এক বিল। শাপলা শালুকের চেয়ে কলমী দামেই বিলের অধিকাংশ ছেয়ে আছে। লোক তাই বলত বিল কলমী। তা থেকেই বিল কলমা বতমানে কলমা। তাছাড়া নিধিরাম কলমায় সুবৃহৎ দীঘি খনন করেন এবং দীঘির পশ্চিম পার্শ্বে দেবালয় নির্মাণ করেন। কাশী হতে কৃষ্ণ পাথরের কালী মুর্তি এনে সেখানে গৃহ দেবতা প্রতিষ্ঠা করেন। এ থেকেই অদ্যাবধী তা কলমা কালী বাড়ি নামে পরিচিত।লমা ইউনিয়নটির ইতিহাস অনেক বেশী বিস্তৃত একসময় এখানে আসত বড় বড় জাহাজ যারা এখান থেকে সোনালী পাট আমদানী করে নিয়ে যেত বিদেশী।এখানে জন্ম গ্রহন করেছে কালী প্রশন্ন ঘোষ, আরও রয়েছে জমিদার বাড়ী শুনা যায় এটি ছিল একসময়ে হিন্দু অধ্যশিত এলাকা কিন্তু পরবর্তীতে তারা ভারতে চলে যায়।